বাংলা ব্লগারে আপনাকে স্বাগতম, সবার আগে সঠিক তথ্য পেতে আমাদের সাথে থাকুন সব সময়। আমাদের বেশির ভাব তথ্য বিশ্লেষন করে তারপর উপস্থাপন করা হয়। শতভাগ তথ্য অনলাইন থেকে সংগ্রহ করে বিশ্লেষনের মাধ্যমে তুলে ধরা হয়। আপনি চাইলে যে কোন তথ্য আমাদের কাছেও পাঠাতে পারেন।
তো চলুন আজকের বিষয়’টি নিয়ে পড়ে নেওয়া যাক….

বাংলা সাহিত্যের জনপ্রিয় গোয়েন্দা চরিত্র ‘মাসুদ রানা’ নিয়ে চলচ্চিত্র নির্মাণের পরিকল্পনা চলছিল অনেকদিন ধরেই। কিন্তু নাম চরিত্রের খুঁজে নির্মাতা সংশ্লিষ্টরা যখন হন্যে তখনই আয়োজন করা হলো রিয়েলিটি শো ‘কে হবেন মাসুদ রানা’। আর তা নিয়েই শুরু হয়েছে নতুন সমালোচনা। বইছে নিন্দার ঝড়।

বিগ বাজেটের এই ছবিতে ‘কে হবেন মাসুদ রানা’ এর বিচারকদের আচরণ নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে।

অভিযোগ আছে তারা প্রতিনিয়ত প্রতিযোগীদের অপমান করছেন। তাদের আচার-ব্যবহার এতটাই ‘জঘন্য’, যা নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকসহ সর্বত্র বিতর্ক ও সমালোচনা শুরু হয়েছে।

দর্শকদের একাংশের অভিযোগ, বিচারক পরিচালক ইফতেখার আহমেদ ফাহমি, শাফায়েত মনসুর রানা, মুহাম্মদ মোস্তফা কামাল, অভিনেত্রী জাকিয়া বারী মম ও শবনম ফারিয়া মাসুদ রানা চরিত্র বিচার করতে গিয়ে প্রযোগীদের সঙ্গে যাহাতাহা ব্যবহার করছেন।

এরইমধ্যে বিচারকদের কুরুচিপূর্ণ আচরণের বেশ কয়েকটি ভিডিও ক্লিপ ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে। যেগুলোতে দেখা যাচ্ছে ফাহমি, শাফায়েত, মম ও ফারিয়া বিভিন্নভাবে অপমান করছেন প্রতিযোগীদের। শুধু তাই নয় প্রতিযোগীদের স্টাইল-ফ্যাশনসহ নানা বিষয়ে কটূক্তি ও তামাশা করেছেন তারা।

এই যখন অবস্থায় তখন গত ২ আগস্ট থেকে চ্যানেল আই’য়ে প্রচার শুরু হওয়া রিয়েলিটি শো ‘কে হবেন মাসুদ রানা’ প্রসঙ্গে মুখ খুলেছেন অভিনেত্রী শবনম ফারিয়া।

তিনি বলেন, ‘মাসুদ রানা বিগ বাজেটের একটি চলচ্চিত্র। যার বাজেট ৮৩ কোটি টাকা! ফলে এই যে বিচারকাজ, গ্রুমিং সবই হচ্ছে বিস্তারিত। আপনার কি মনে হয়, যারা ৮৩ কোটি টাকা বিনিয়োগ করছেন, তারা হুট করেই দু’একজনকে ধরে এনে বিচারকের আসনে বসিয়ে দেবেন? নিশ্চয়ই নয়।’

ফারিয়া বলেন, ‘অনুষ্ঠানে বিচারকরা যা-তা করে চলে যাবেন, আর তারা কোটি কোটি টাকা ঢেলে দেবেন? নিশ্চয়ই নয়!’

তার ভাষ্য, ‘আমি পরিচালক, নির্মাতাদের সম্মান করি। তাদের অনুমতি ছাড়া একটি শব্দও বলতে রাজি নই। ভেবে দেখুন, অডিশনে আসা যুবকদের অপমান করার জন্য আপনারা ক্ষুব্ধ। আর সেটা প্রতিবাদ করতে আপনার কী করছেন। আপনারাও বিচারকদের চরম অপমান করে তার প্রতিবাদ করছেন। পার্থক্যটা কোথায় রাখলেন?’

ফারিয়া বলেন, ‘শুধু বলি গত কয়েকদিন ধরে আমার সঙ্গে যা ঘটেছে তা অবর্ণনীয়! আমি কখনও কাউকে বলতে পারবো না।

তা আমার নিজের মুখে বলা সম্ভব না। ফেসবুকে হুমকি গালি-গালাজসহ আমার নম্বর ছড়িয়ে দেয়া হয়েছে। একজন মেয়ের জন্য এর ফল কতটা ভয়ংকর তা নিশ্চিয়ই আপনারা উপলব্ধি

করতে পারবেন।’ এই রিয়েলিটি শো’র একজন বিচারক হিসেবে এ মুহূর্তে তিনি নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন বলেও জানান শবনম ফারিয়া।

News Reporter

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *